ধর্মের সম্মান নষ্ট হয় না

লিখেছেনঃ রিয়ানা তৃনা

নাস্তিকেরা শুধু ইসলামকেই কেন্দ্র করে লেখে? তাহলে বলবো আপনার পড়ার অভ্যাস কম। শুধু ধর্ম নিয়ে যারা ব্যাবসা করে ওদের শেয়ার করা লেখাগুলই আপনারা পরেন। অন্যগুলো পড়েও দেখেন না। বেশিরভাগ মুক্তমনা লেখক যুক্তি, প্রমান, বিজ্ঞানের আলোকেই তার লেখা গুলো লিখে থাকে। আপনার মতো মানুষেরা এগুলকে নাস্তিকতার নামে আখ্যায়িত করে নিজেরাই নিজেদের মতো করে ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করেছে বলে ভেবে বসে থাকেন। তাই আপনাদের মতো মানুষদের বলছি, বেশি করে পড়ুন। যত বেশি পড়বেন তত বেশি জানবেন। হয়ত একদিন আপনি নিজেও এর উত্তর দিতে পারবেন। সুতরাং নাস্তিকরা যে শুধু ইসলাম নিয়ে লেখে, আপনার এই ধারনা ভুল।

মুক্তমনারা মুক্তচিন্তার চর্চা করেন, জানতে চান, বুঝতে চান, বিচার বিশ্লেষণ করে প্রমান সাপেক্ষে একেক মতবাদে বিশ্বাসী হন একেকজন। আপনাদের মাঝে অনেকেই মনে করেন, এদের মৃত্যুর জন্য তারাই দায়ী। শুধু তাই নয়, ইসলাম ধর্ম বাঁচানোর নামে, অপমানের জবাব দেয়ার নামে, কটাক্ষ করার নামে, মানুষ জবাই করে হত্যা করাকে আপনি প্রত্যক্ষ ভাবে সমর্থন করছেন এবং করবেন, তাইতো?  আপনার এই প্রত্যক্ষ ভাবে সমর্থন দেখে, আপনাদের একেকজন জঙ্গিবাদী মনে হয়। আপনার মতন যে মানসিকতা মানবতার বিপক্ষে কথা বলে, চাপাতির কোপে মানুষ হত্যা করে, এরাই হলো একেকজন জঙ্গি। আপনারা ধর্মই বোঝেন না।  যদি ধর্মকে আসলেই বুঝতেন তাহলে খুব ভাল করেই বোঝা উচিৎ কারো করা উক্তি অথবা কটূক্তিতে ধর্মের এতটুকু পরিমান মান, সম্মান নষ্ট হয় না। ধর্ম অনেক গভির। এর বিশালতা অসীম। আপনার মতো মানুষদের পক্ষে এই ধর্মকে বোঝা সহজ হবে না। আসলে, অকাল মরন ওদের নয় অকাল মরন হয়েছে আপনাদের মতো অমানুষদের।

যদি কোন মানুষ ধর্মের বিরুদ্ধে লিখেই থাকে তাহলে আপনি যে ধর্মে বিশ্বাসী সেই ধর্মে নিশ্চয়ই এর সমাধান এর কথাও লেখা আছে তাইনা? তাহলে এদের মতো আপনারাও কলম তুলে নিচ্ছেন না কেন? আপনারাও কলম হাতে নিন। আপনারাও লিখুন। যুক্তি দিন, ব্যাখ্যা দিন, যুক্তির খণ্ডন করুন। শুধু শুধু দালাল বলে, মানুষ মেরে নিজের ধর্মের অবমাননা আপনারা নিজেরাই করছেন। কাউকে খুন করা এর সমাধান নয়। বরং এতে করে ধর্ম আরও প্রশ্নবিদ্ধ হয়। নিজের ধর্মের উপর যদি আস্থা থেকেই থাকে তবে উপযুক্ত জবাব দিয়েই প্রতিবাদ করুন। যুক্তির ধার কেউ ধারুক বা না ধারুক আপনার মনে সংশয় থাকালে সেটা দূর করার দায়িত্বও কিন্তু আপনার। তাই যথাযথ উত্তর দিয়ে সংশয় দূর করার চেষ্টা করুন। আপনার উদ্যোগ দেখে আরও মানুষ উদ্যোগী হবে। কিছু হোক বা না হোক এই অন্ধকার সমাজের অন্ধকার তো দূর হবে!

আপনারা ধর্মকে এত ছোট করে দেবেন না। আপনাদের ধর্মীয় বিশ্বাস যদি এতই দৃঢ় হয়, তাহলে কারো করা মন্তব্যের যথাযথ জবাব আপনার কাছে থাকা উচিৎ। না জেনে, না বুঝে আপনারা তলোয়ার দিয়ে সরাসরি একটা মানুষকে শিরচ্ছেদের কথা বলছেন। আপনাদেরকে মানুষের পর্যায়ে ফেলতে চাইনা। হত্যার কথাই বলেন সবসময়। কিন্তু, যুক্তি দিয়ে প্রমান দিয়ে বুঝিয়ে দেয়ার ক্ষমতা নেই আপনাদের। আপনাদের মতো মানুষদের জন্য মানুষ ইসলামকে জঙ্গিবাদ ছাড়া কিছুই মনে করে না। আপনারা মনের ভেতরে জঙ্গিবাদ পোষণ করেন বলেই আপনারা অমানুষ।

প্রতিবাদের অস্র এই কলম, যদি লেখা ভাল না লাগে তবে লিখেই এর জবাব দিন অযথা আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে যুক্তি তর্ক দিয়ে বুঝিয়ে ভুল সুদরে দিন। কে নাস্তিক হবে আর কে আস্তিক হবে এটা বিচারের দায়িত্ব আমার বা আপনার কারো নয়।